Menu

সোনাতলায় মোবাইলে প্রেমঃ বিয়ের ৭মাস পর গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (লতিফুল ইসলাম সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলায় উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হাঁসরাজ (ব্যারাভাঙ্গা) গ্রামের মিষ্টি ব্যবসায়ী মুকুল প্রামানিকের স্ত্রী শয়ন ঘরের তীরের সাথে গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস দিয়ে আনিকা বেগম(২৬) নামে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে।

সংবাদ পেয়ে সোনাতলা থানা এসআই নিরঞ্জন ফোর্সসহ গতকাল বুধবার আনিকার মরদেহ উদ্ধার কওে, বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরন করেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রায় বার বছর পূর্বে হাঁসরাজ গ্রামের বাদশা প্রামানিকের ছেলে মুকুল প্রামানিক(৩৫) এর সাথে আউচেরপাড়া গ্রামের টুকু মিয়ার মেয়ে মোছাঃ বুলি বেগমের বিয়ে হয়। সংসার করা কালে তাদের ঔরশে মেয়ে চামুলী(১০) ও ছেলে বায়জীদ(৪) এর জন্ম হয়। কিন্তু হঠাৎ করে মোবাইলফোনে পরিচয় হয় চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সদর উপজেলার এক সন্তানের জননী মোছাঃ আনিকা বেগমের সাথে।

এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের সুত্র ধরে প্রায় ৭মাস আগে আনিকা আগের স্বামী সন্তান ছেড়ে মুকুলের বাড়িতে চলে আসে। আনিকা পূর্বের স্বামীকে তালাক দিয়ে মুকুলকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে মুকুলের বড় স্ত্রী ছেলে-মেয়ে নিয়ে আউচেরপাড়া বাবার বাড়িতে চলে যায়। মুকুল ছোট স্ত্রী আনিকা বেগম নিয়ে সংসার করছিল।

ঘটনার রাত্রিতে মুকুল হরিখালি বাজারে তার মিষ্টির দোকানে থাকার সুযোগে আনিকা বেগম আত্মহত্যা করে।

No comments

Leave a Reply

13 + 3 =

সর্বশেষ সংবাদ