Menu

সোনাতলায় ৩ রাস্তার মোড়ে মাটির স্তুপঃ ঘটছে অহরহ দূর্ঘটনা, নিভে যাচ্ছে জীবন প্রদীপ

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বদিউদ-জ্জামান মুকুল, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলায় জনগুরুত্বপূর্ণ তিনটি সড়কের মিলন স্থলে এক ইটভাটার মালিক দীর্ঘদিন ধরে মাটির পাহাড় (স্তুুপ) করে রেখেছে। ফলে যানবাহনের চালক সহ পথচারীরা বিপাকে পড়েছে। প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা।

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার বালুয়াহাট-সুখানপুকুর, সৈয়দ আহম্মদ কলেজ-মহাস্থান, সুখানপুকুর-মহিচরণ সড়কের মিলন স্থল হচ্ছে কুচিয়ামারী। ওই তিনটি সড়কের মিলন স্থলে দীর্ঘদিন যাবত একজন ইটভাটার মালিক মাটির পাহাড় (স্তুুপ) করে রেখেছে।

জনগুরুত্বপূর্ণ ওই তিনটি সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত পথচারী, স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা পড়–য়া শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শতশত যানবাহন ও যাত্রী দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করেন। ওই স্থানে মাটির পাহাড় থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে অতিক্রম করতে হয় ৩ সড়কের মিলন স্থল। প্রতিনিয়ত ছোট খাটো দূর্ঘটনা লেগেই থাকে ওই স্থানে।

বিগত ৭/৮ মাস পূর্বে ওই স্থান সংলগ্ন জায়গায় দুটি মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘষে উপজেলার গনিয়ারীকান্দি নয়াবাড়ি এলাকার সাইফুল ইসলাম মহুরী নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়। আহত হন স্থানীয় মহিচরণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোঃ দৌলতজামান ও আব্দুল হালিম মোস্তা ডাক্তার।

স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করে বলেন, ৩ সড়কের মিলন স্থলে মাটির পাহাড় করে রাখায় তাদের স্বাভাবিক চলাচলে বিঘœ ঘটছে।
জনৈক একজন প্রভাবশালী ইটভাটা মালিক কাউকে কোন তোয়াক্কা না করে মাটির পাহাড় করে রাখায় সাইফুলের মতো অনেকের জীবন প্রদীপ নিভে যেতে পারে।

এ বিষয়ে সোনাতলা থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, রাস্তার মোড়ে মাটির স্তুুপ পাহাড় করে রাখার বিষয়টি স্থানীয় লোকজন তাকে অবগত করেন। লিখিত ভাবে অভিযোগ পাওয়া গেলে শিগগিরই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শফিকুর আলম জানান, ৩টি সড়কের মিলন স্থলে মাটি পাহাড় করে রাখায় দূর্ঘটনার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে।

No comments

Leave a Reply

six + 20 =

সর্বশেষ সংবাদ

নির্বাচিত সংবাদ