Menu

সোনাতলায় ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ২টি গুচ্ছগ্রামঃ মাথা গোঁজার ঠাই পাচ্ছে ৩২০ পরিবার

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বদিউদ-জ্জামান মুকুল, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার দুইটি চরে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩২০ ভূমিহীন পরিবারের মাথা গোঁজার ঠাই করে দেওয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বিশেষ প্রকল্পে বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার তেকানীচুকাইনগর ইউনিয়নের চরচুকাইনগর ও চরমহনপুর এলাকায় গুচ্ছগ্রাম নির্মাণের জন্য ১৩শ মেট্রিক টন খাদ্য শস্য বিনিময়ে মাটি কাটার কাজ সম্পন্ন করা হয়। ওই দুটি গুচ্ছগ্রামে এখন ব্যারাক নির্মাণের কাজ শুরু হবে।

সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে চর চুকাইনগরে ৪২টি ও চর মহনপুরে ২২টি মোট ৬৪টি ব্যারাক নির্মাণ হবে। সেই ব্যারাকগুলোতে ৩২০ পরিবার মাথাগোঁজার ঠাই পাবে। ইতিমধ্যেই সেনাবাহিনীর একটি দল সংশ্লিষ্ট জায়গা পরিদর্শন করেছে।

ওই দুটি গুচ্ছগ্রামে ব্যারাক নির্মাণ করতে সরকারের ব্যয় হবে ৬ কোটি টাকা। এর মধ্যে চর চুকাইনগরে ৪ কোটি এবং চর মহনপুরে ২ কোটি টাকা ব্যয় হবে।

ওই দুটি স্থানে গুচ্ছগ্রাম স্থাপন করায় ভুমিহীন শ্রেণীর মানুষগুলো খুঁজে পাবে মাথাগোঁজার ঠাই। ইতিমধ্যেই যাদেরকে ঘর বরাদ্দ দেওয়া হবে তাদের প্রাথমিক তালিকা চুড়ান্ত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় চেকানীচুকাইনগর ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শামছুল হক মন্ডল জানান, যমুনা নদীর মধ্যেবর্তী এলাকায় দুটিগুচ্ছগ্রাম নির্মাণ হওয়ায় হতদরিদ্র মানুষগুলোর চোখে মুখে আনন্দের ছাপ ফুটে উঠেছে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউর রহমান জানান, এটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একটি বিশেষ প্রকল্প। যাদের ঘর বাড়ি নেই, ভুমিহীন শ্রেণীর মানুষ। এ ধরনের ৩২০ পরিবার ওই দুটি গুচ্ছগ্রামে মাথাগোঁজার ঠাই পাবে। গুচ্ছগ্রামের ঘর নির্মাণের সমস্ত কাজ তদারিক করবেন সেনাবাহিনী।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বর্তমান সরকারের শাসনামলে একটি মানুষও যাতে গৃহহীন না থাকে এজন্য সরকার প্রধান শেখ হাসিনা নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এ প্রেক্ষিতে সরকার গৃহহীন মানুষের জন্য গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পগুলো হাতে নিয়েছে।

No comments

Leave a Reply

12 + 12 =

সর্বশেষ সংবাদ