Menu

সোনাতলায় ৭৯ বছর বয়সেও ভাতা ভাগ্য জোটেনি সুমতি রানীর

বদিউদ-জ্জামান মুকুলঃ মহিলাদের ৬২ বছর বয়সে পা রাখলেই বয়স্ক ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত হতে পারবে। অথচ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের হাটকরমজা এলাকার বিধবা সুমতি রানী ৭৯ বছর বয়সেও পায়নি বয়স্ক ভাতা। তবে তার অভিযোগ জনপ্রতিনিধিদের দাবিকৃত অর্থ দিতে না পারায় সে ওই সুযোগ সুবিধার আওতায় আসেনি।
ওই এলাকার মৃত শ্যাম তরুনী দাসের স্ত্রী সুমতি রানী ১৯৪২ সালের ৩ এপ্রিল বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার তরনী পাড়া এলাকায় জন্ম গ্রহণ করেন। তার বাবা মতি তরুনী দাস ও মা মৃত কালিদাসীর ঘরে জন্ম গ্রহণ করে সে। মাত্র ১৩ বছর বয়সে বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের হাটকরমজা এলাকার শ্যাম তরুনী দাসের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় সে। এরপর দীর্ঘ ২৫ বছর পূর্বে ১৯৯৬ সালে শ্যাম তরুনী দাস পরলোকগমন করে। ৪ ছেলে ও ৩ মেয়ের জননী সে। ছেলেরা তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে আলাদা ভাবে বসবাস করে। সুমতি রানী বাঁশের তৈরী বিভিন্ন ধরনের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র তৈরি ও বিক্রি করে কোন রকমে জীবিকা নির্বাহ করলেও বর্তমানে সে বয়সের ভাড়ে ওই সকল কাজ করতে পারে না। ফলে বারবার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিকট বয়স্ক ভাতার জন্য ধর্না দেয় সুমতি রানী। কিন্তুু জনপ্রতিনিধিদের দাবিকৃত অর্থ দিতে না পারায় সে ওই তালিকাভুক্ত থেকে বঞ্চিত হয়।
এ বিষয়ে সুমতি রানী জানান, তার ওয়ার্ডের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির নিকট বারবার অনুরোধ আকুতি মিনতি করেও কোন ফল হয়নি। জনপ্রতিনিধির দাবিকৃত ৫ হাজার টাকা দিতে না পারায় সে বয়স্ক ভাতা থেকে বঞ্চিত।
এ বিষয়ে জোড়গাছা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাফিজার রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ মনগড়া ও ভিত্তিহীন। তিনি আরও জানান, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ৪ বারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি তিনি। তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ ইতিপূর্বে কেউ কখনও করেনি।
এ বিষয়ে জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল জানান, এটা আমার কাজ নয়। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তালিকা আমার নিকট জমা দিলে আমি সেটি যাচাই বাছাই করে সমাজ সেবা অধিদপ্তরে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য প্রেরণ করি।
এ বিষয়ে সমাজ সেবা কর্মকর্তা আব্দুল হান্নান সরকার জানান, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার ৬৫ বছর বয়সী পুরুষ ও ৬২ বছর বয়সী মহিলারা এবার বয়স্ক ভাতার আওতায় আসবে। চলতি মাসেই তারা আবেদন করতে পারবে। সংশ্লিষ্ট উপজেলার ৬৫ ও ৬২ বছর বয়সী নারী পুরুষ এবার শতভাগ বয়স্ক ভাতার আওতায় আসবে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন জানান, এ ধরনের কোন অভিযোগ কেউ তাকে অবগত করেননি। এটা সত্যি দুঃখ জনক।

No comments

Leave a Reply

twenty − 4 =

সর্বশেষ সংবাদ