Menu

সোনাতলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আ’লীগ বিএনপি’র একাধিক প্রার্থী

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (স্টাফ রিপোর্টার): আগামী মার্চ মাসে দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার ঘোষনা দেওয়ায় পর থেকে বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নড়েচড়ে বসেছে। আর সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকায় প্রবীনদের পাশাপাশি রয়েছে নবীন প্রার্থীরাও। ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রার্থী নিজেদের প্রার্থীতা জানান দিতে বিভিন্ন সভা সমাবেশে যোগ দিচ্ছেন। অনেকে নিজে অথবা তাদের অনুসারীদের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন।
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটারদের মুখে মুখে সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকায় আওয়ামীলীগের একাধিক ও বিএনপি‘র একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। তবে জাতীয় পার্টি কিংবা জাসদের কোন প্রার্থীর নাম এখনও শোনা যায়নি।
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় একটি পৌরসভা ও সাতটি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৪৩ হাজার।
এরশাদ সরকারের শাসনামলে প্রথম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাবেক প্রাদেশিক পরিষদের এমএলএ মরহুম সৈয়দ আহম্মদের ২য় ছেলে অধ্যক্ষ নজবুল হক নির্বাচিত হন। এরপর ২০০৯ সালে ও ২০১৪ সালে উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির নির্বাচিত হন। এবারেই প্রথম দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার ঘোষনা দেয়ায় দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরা নড়েচড়ে বসেছে। এমনকি দলীয় মনোনয়ন পেতে হাই কমান্ডের সাথে গ্রুপিং লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন।
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী তালিকায় যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যন অধ্যক্ষ আলহাজ্ব নজবুল হক, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি, বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির, বগুড়া জেলা পরিষদের সদস্য ও সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি এ্যাড. মিনহাদুজ্জামান লীটন, জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক এ্যাড জাকির হোসেন নবাব, সোনাতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু মোঃ জিয়াউল করিম শ্যাম্পো, সোনাতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মেজবাউল হক জুলু, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাকুল্লা ইউপি চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্ত, সাবেক উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আছালত জামান, এ্যাড. ফজলুল হক সবুজ ও মরহুম সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমানের ছেলে একেএম শাকিল রেজা বাবলা।
লোকজনের সাথে কথা বলে জানাগেছে, এবারের নির্বাচনে উপজেলার ভোটাররা বিকল্প চিন্তা করছেন। তারা প্রতীকের চেয়ে ব্যক্তিকে বেশি গুরুত্ব দেবে বলে জানা গেছে।
ইতিমধ্যেই সম্ভাব্য প্রার্থীদের কেউ কেউ এলাকায় পোস্টার, লিপলেট, ফেস্টুন, ব্যানার টানিয়ে দিয়ে এলাকাবাসীদের শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন। আবার গণসংযোগ, সভা সমাবেশ, মতবিনিময় করে চলছেন।
তবে ওই নির্বাচনী আসনে ভোটাররা এবার বিকল্প চিন্তা করছেন। তারা উন্নয়নের পক্ষে থাকতে চায়। দলমত নির্বিশেষে যে এলাকার উন্নয়ন করবে তার পক্ষে রায় দিবে।

No comments

Leave a Reply

five + six =

সর্বশেষ সংবাদ