Menu

সোনাতলা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বন্যার্তদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (লতিফুল ইসলাম, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলায় যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এ পর্যন্ত উপজেলার তেকানী চুকাই নগর ইউনিয়নের ১৩টি গ্রামের চারহাজার পরিবার, পাকুল্যা ইউনিয়নের ৭টি গ্রামের দুই হাজার পরিবার ও মধুপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের উনআশি পরিবারের পানি বন্দী অবস্থায় রয়েছে। ওই তিন ইউনিয়নের নিচু এলাকার পাট,রাস্তাঘাট ও ব্রিজ পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। তেকানী চুকাই নগর ইউনিয়নের ৫৯টি পরিবার যমুনা নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থার জন্য ওয়াপদা বাঁধের ওপর ১৫টি নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর আলম। তিনি আরো জানান, ওয়াপদা বাঁধের পূর্ব পাশে ১৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি উঠেছে। ওইসব প্রতিষ্ঠানে পাঠদান স্থগিত রাখা হয়েছে। তেকানী চুকাই নগর ইউনিয়নের কাচারী বাজারে ও পাকুল্যা ইউনিয়নের মির্জাপুরে মেডিক্যাল টিম স্থাপন করা হয়েছে বলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান জানান।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, তেকানী চুকাই নগর ইউপি চেয়ারম্যান,পাকুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা.রহমত উন্নবী রোববার বিকেলে নৌকাযোগে তিনটি ইউনিয়নের বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন ও বন্যার্তদের মাঝে চাল,চিড়া, ডাল,বিস্কুট,খাবার স্যালাইন ইত্যাদি শুকনা খাবার বিতরণ করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর আলম ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান জানান,এ পর্যন্ত ১০ মেট্টিক টন চাল জেলা প্রশাসক বরাদ্দ দিয়েছেন।

No comments

Leave a Reply

4 × 2 =

সর্বশেষ সংবাদ