Menu

সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচন: প্রতীক বরাদ্দের সাথে সাথে গণসংযোগে ব্যস্ত প্রার্থীরা

বদিউদ-জ্জামান মুকুল: বগুড়ার সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে নির্বাচন কমিশন প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার সাথে সাথে প্রার্থীরা গণসংযোগে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এমনকি হোটেল রেস্তোরা চা-সিগারেটের দোকানে নির্বাচনী খোশগল্পে মেতে উঠেছে ভোটাররা।
আগামী ২ নভেম্বর ২০২১ বগুড়ার সোনাতলা পৌরসভার দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচন। ওই নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। এরা হলেন, বর্তমান মেয়র জাহাঙ্গীর আলম নান্নু, আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী শাহিদুল বারী খান রব্বানী ও সাবেক সংসদ সদস্য ডাঃ হাবিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র একেএম শাকিল রেজা বাবলা।
গতকাল সোমবার নির্বাচন কমিশন ওই পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছে। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই প্রার্থীরা গণসংযোগে মাঠে নেমে পড়েছেন। তারা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।
ওই পৌরসভার সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম নান্নু গতকাল পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ করেন। এ সময় তিনি ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, ২০১৬ সালের প্রথম নির্বাচনে আপনারা আমাকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করার পর খুব অল্প সময়ের মধ্যে গ শ্রেণির সোনাতলা পৌরসভাটি খ শ্রেণিতে উন্নীত করেছি। পৌর কর আপনাদের হাতের নাগালের মধ্যে এনেছি। এমনকি নাগরিক সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করেছি। রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন ও রোড লাইটিং করেছি। এছাড়াও দায়গ্রস্থ কন্যার পিতার পাশে দাঁড়িয়েছি। পৌর এলাকার কামারপাড়ায় নূরানী হাফেজিয়া ক্বওমী মাদ্রাসা, গোপাইবাড়ীতে হাফিজিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করার পাশাপাশি কামারপাড়া গড়চৈতন্যপুর ও গড়ফতেপুরে কবরস্থান প্রতিষ্ঠা করেছি। তিনি আরও বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার অংশ হিসেবে সোনাতলা পৌরসভাকে মডেল পৌরসভায় গড়ে তুলবেন। মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ উপহার দিবেন।
এদিকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী শাহিদুল বারী খান রব্বানী গতকাল কামারপাড়া, গড়চৈতন্যপুর এলাকা সহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন। এ সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. মিনহাদুজ্জামান লীটন ও দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। তিনি নির্বাচিত হলে প্রয়াত সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের স্বপ্নের সোনাতলা পৌরসভা গড়ে তুলবেন।
অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম শাকিল রেজা বাবলা পৌর এলাকার কামারপাড়া সহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযাগ করেন। এ সময় তিনি বলেন, তিনি পৌরবাসীর ভোটে নির্বাচিত হলে, তার বাবা মরহুম ডাঃ হাবিবুর রহমানের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করবেন। সোনাতলা পৌরবাসীর সুখে দুখে পাশে দাঁড়াবেন।
উল্লেখ্য, ওই পৌরসভার মোট ভোটার ১৯ হাজার ৫২৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৯ হাজার ৪০৪ জন ও মহিলা ভোটার ১০ হাজার ১১৯ জন। ১১টি কেন্দ্রে ভোটাররা আগামী ২ নভেম্বর ২০২১ তারিখে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট দিয়ে তাদের প্রতিনিধিত্ব বেছে নেবেন।

No comments

Leave a Reply

fifteen + seventeen =

সর্বশেষ সংবাদ