Menu

সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচন: ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রচারণায় তিন মেয়র প্রার্থী

লতিফুল ইসলাম, সোনাতলা: বগুড়ার সোনাতলা পৌরসভার আগামী ২ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্ব াচন সামনে রেখে প্রচারণায় নেমেছে মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত সদস্যরা। ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রচারণায় নেমেছে তারা। এ নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে তিনজন নির্বাচন করবেন। মেয়র প্রার্থীরা হলেন- বর্তমান মেয়র, স্বতন্ত্র প্রার্থী (মার্কা নারকেল গাছ) আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু, আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী (মার্কা নৌকা) শাহিদুল বারী খান রব্বানী, সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম ডাঃ হাবিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র, স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম সাকিল রেজা বাবলা (মার্কা জগ)।
আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু পুনরায় মেয়র পদে নির্বাচন করছেন। তিনি পৌরসভার ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন এবং তাদের ভোট দেয়ার কথা বলছেন। তিনি জানান, গত ৫ বছরে পৌরসভার প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। পৌরসভাকে গ শ্রেণি থেকে খ শ্রেণিতে রূপান্তরিত করেছি। আগামী ৫ বছর আপনাদের ভোটে আমি নির্বাচিত হলে বাকী অসম্পূর্ণ কাজগুলো সম্পূর্ণ করবো ইনশাআল্লাহ। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন ও ভোট দেবেন।
আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী শাহিদুল বারী কান রব্বানী বলেন, উপজেলার ও পৌরসভার আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেছি। তিনি কিভাবে নির্বাচিত হবেন তা নিয়ে ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছেন। কিভাবে ভোটে জিতবেন তা নিয়ে তিনি ব্যস্ত রয়েছেন।
তিনি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে আমার পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তরিত করবো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনাতলা পৌরসভাকে একটি অসাম্প্রদায়িক পৌরসভায় উপহার দেবো ।
স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম সাকিল রেজা বাবলা পৌরসভার ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে,বাড়ি-বাড়ি ভোট প্রার্থনা করছেন। তার ওয়াদা আমি পৌরসভা নির্বাচনে ভোটাররা যদি আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন তাহলে আমি আমার বাবা মরহুম ডাঃ হাবিবুর রহমান এমপির মতো সততার সাথে কাজ করবো। সকল ভোটার ও জনগণের সকল উন্নয়নমূলক কাজগুলো সম্পন্ন করবো।
এছাড়াও হাটে-বাজারে,গ্রামে চায়ের দোকানে, মোড়ে পোস্টারে ছেয়ে গেছে। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। কে হবেন পৌর পিতা? এ ধরণের নির্বাচনী হাওয়া বইছে।
এ নির্বাচনে মোট ১৯ হাজার ৫শ ২ে৩ জন ভোটার ভোট প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ- ৯ হাজার ৪ শ, ৪জন, মহিলা ভোটার সংখ্যা- ১০ হাজার, ১শ, ১৯ জন। ৯ টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর ৪০ এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করবেন।
উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার আশরাফ হোসেন জানান, সকল কেন্দ্রের ভোট নেয়ার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

19 − nine =

সর্বশেষ সংবাদ